Tags

, , , ,

এখন বিনামূ্ল্যে এত সফটওয়্যার পাওয়া যায় যে নিত্য প্রয়োজনীয় কাজ করার জন্য টাকা দিয়ে সফটওয়্যার কেনার প্রয়োজন পড়েনা। যেমন: ওপেনঅফিস স্যুট, ফাইলজিলা, পেইন্ট ডটনেট ইত্যাদী।

আমি বরাবরই সফটওয়্যারের সর্বশেষ সংস্করণ ব্যবহার করতে চাই। যত নামকরা সফটওয়্যারই হোক, খুঁটিনাটি সুবিধা বাড়িয়ে বা সমস্যা সমাধান করে আপডেট সবসময়ই বের হয়। উইন্ডোজ বা অফিস সেন্ট্রাল আপডেটের মাধ্যমে নিজে নিজে আপডেট হলেও ফায়ারফক্স, ফাইলজিলা আলাদা আলাদা আপডেট হয় এবং এই প্রক্রিয়াটি অনেকেরই ভালো লাগেনা।

সেদিন ইন্টারনেট ঘাঁটতে ঘাঁটতে Soft2Base নামের চমৎকার একটি সফটওয়্যার পেলাম। সফটওয়্যার বললে ভুল হবে, এটাকে এপ্লিকেশন ম্যানেজার বলা উচিৎ হবে। সাইবার ওয়ার্ল্ডে বিনামূল্যে উপলব্ধ প্রায় সব সফটওয়্যারের তালিকা আছে এর মধ্যে, যদিও আমি তালিকায় ৬১টা নাম পেলাম, এটাইবা কম কি!

এপ্লিকেশনটি চালালে সার্ভারের ডাটাবেইজে থাকা তথ্যের সাথে কম্পউটারের তথ্য মিলিয়ে মূল উইন্ডোতে একটি তালিকা প্রদর্শন করে, তালিকার মধ্যে সফটওয়্যারের নামের পাশে সবুজ, নীল এবং বেগুনী রঙের বোতাম দেখা যায়, সবুজ মানে এই সফটওয়্যারটি ইনস্টল আছে এবং আমি সর্বশেষ সংস্করণ ব্যবহার করছি, নীল মানে এই সফটওয়্যারটি আমার কম্পিউটারে ইনস্টল নেই এবং আমি চাইলে ইনস্টল করতে পারি, আর বেগুনী রঙের বোতামের অর্থ হচ্ছে এই সফটওয়্যারের একটি পুরাতন সংস্করণ আমার কম্পিউটারে ইনস্টল আছে এবং আমি চাইলে আপডেট করতে পারি।

ইনস্টলের জন্যও রয়েছে বেশ কিছু অপশন। Silent Install ব্যবহার করলে আমাদের বিরক্ত না করেই সফটওয়্যার ইনস্টল হয়ে যাবে।

আমার ধারণা সফটওয়্যার ইনস্টলে এক নতুন মাত্রা যোগ করবে এই এপ্লিকেশন ম্যানেজারটি, কিন্তু এখনো অনেক কিছু ঠিক করতে হবে। যেমন আমার কম্পিউটারে VLC x64 ইনস্টল করা আছে, কিন্তু সে চিনতে পারেনি। Waterfox ইনস্টল করা আছে, কিন্তু সেটাও চিনতে পারেনি। বেটা বা অসম্পুর্ণ সংস্করণ ইনস্টল করবো কি-না, সেটা নির্বাচন করার উপায় নাই।

আশাকরা যায় ভবিষ্যতে ছোটখাট এই সমস্যাগুলি আর থাকবেনা…