Tags

, , , ,

কয়েক বছর আগের কথা। ক্যামেরায় ছবি তুলে কম্পিউটারে নেবার সময় ভাবতাম, এত ঝামেলার দরকার কি, এরকম প্রযুক্তি বের হয়না কেন যে ছবি তোলার সাথে সাথে সরাসরি কম্পিউটারে চলে যাবে! সেবার যখন সিঙ্গাপুরে গেলাম, দেখলাম ওরা ট্যুরিস্টদের ছবি তুলছে এক জায়গায় আর প্রিন্ট করে দিচ্ছে আরেক জায়গা থেকে। মাঝখানে তারের কোনো যোগাযোগ চোখে পড়লোনা।

একটু খোঁজ নিতেই পেয়ে গেলাম আই-ফাই ডিভাইসের সন্ধান। সাধারণ একটা এসডি কার্ড হলেও ডিভাইসটি কিন্তু আমার কল্পকাহিনীকে বাস্তব রূপ দিয়েছে। আই-ফাই একটি আধুনিক ওয়াই-ফাই এনেবেল্ড ডিভাইস, একবার কনফিগার করে নিলে ওয়াই-ফাই রেঞ্জের মধ্যে থেকে ছবি/ভিডিও সরাসরি কম্পিউটার বা ক্লাউডের সাথে সিঙ্ক করে নিতে পারে। অর্থাৎ আমি আই-ফাই কার্ডটি প্রথমে আমার কম্পিউটারের লাগিয়ে কনফিগার করে নেবো, এর পরে ছবি তুললে সে প্রথমে তার নিজস্ব মেমরিতে ধারণ করে রাখবে। পরে ওয়াই-ফাই রেঞ্জের মধ্যে আসলে কম্পিউটারের সাথে বা ক্লাউডের সাথে সিঙ্ক করে নেবে। আমাকে তার লাগিয়ে বা কার্ড খুলে ডাটা ট্রান্সফার করতে হবে না।

এক নজরে দেখে নেই এই ডিভাইসের কয়েকটি কার্যকরীতা –

  • কোনো তারের সংযোগ ছাড়াই ছবি/ভিডিও সরাসরি কম্পিউটার বা ক্লাউডে আপলোড
  • সরাসরি অনলাইনে (ফেসবুক, পিকাসা, ফ্লিকর, ইউটিউব ইত্যাদি) শেয়ার
  • ক্যামেরায় জিওট্যাগ না থাকলেও ওয়াই-ফাই ব্যবহার করে ছবিতে জিওট্যাগ
  • এপ্লিকেশনের মাধ্যমে এন্ড্রোয়েড বা আইওএস ডিভাইসে ছবি/ভিডিও ডাউনলোড
  • ক্লাশ ৬ গতির ইন বিল্ট মোমরি সহ অনেকগুলি চমৎকার ফিচার

আমি Pro X2 মডেলটা প্রায় $১০০ দিয়ে কিনেছি এবং আমার কাছে জিনিসটা দারুন লেগেছে! একটা ভিডিওতে চট্ করে এর সম্পর্কে জেনে নেই-

ওহ্ একটা ঝামেলা আছে, এটা উইন্ডোজ আর ম্যাকে চললেও লিনাক্সের জন্য এর কোনো সমাধান নেই আপাতত!